উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তির বিক্রির উপর করারোপন


উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তি বিক্রির জন্য আয়করের নিয়মাবলী এবং জমা মূলধনের লাভ, অন্য যে কোনও মাধ্যমে পাওয়া সম্পত্তি, যেমন সরাসরি ক্রয়, থেকে ভিন্ন।

উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া সম্পত্তি বিক্রির উপর যে করগুলি রয়েছে তাতে  যথেষ্ট বিভ্রান্তি রয়েছে। যদিও অনেকে মনে করেন যে উত্তরাধিকারসূত্রে পাওয়া বাড়ি বিক্রির অর্থ কর থেকে সম্পূর্ণ অব্যাহতি পায়, আবার অন্যরা মনে করে যে এটি সম্পূর্ণরূপে করযোগ্য।

প্রকৃতপক্ষে, উত্তরাধিকারের ঘটনায় কোন কর দায় নেই। যদিও উত্তরাধিকারসূত্রে পাওয়া বাড়িটির বিক্রি করার উপর লাভ, মূলধন লাভ হিসাবে করযোগ্য।

 

মূলধন লাভের হিসাব

মূলধনের লাভ হয় স্বল্পমেয়াদী হতে পারে, অথবা দীর্ঘমেয়াদী হতে পারে, যা সম্পত্তি ধরে রাখার মেয়াদকালের উপর নির্ভর করে। যদি উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত বাড়িটি 36 মাসের বেশি সময় ধরে রাখা হয় , তবে এটি একটি দীর্ঘমেয়াদী সম্পদ হিসাবে বিবেচিত হয় । 36 মাসের  সময়ের মধ্যে আপনি শুধুমাত্র সেই সময় কে অন্তর্ভুক্ত করবেন না যখন আপনি বাড়ীটি ধরে রেখেছিলেন, কিন্তু সেই সময়কেও অন্তর্ভুক্ত করবেন যখন আগের মালিক যারা এটির জন্য অর্থ প্রদান করেছিল তাদের দ্বারা বাড়িটি ধরে  রাখা হয়েছিল।

36 মাসেরও কম সময়ের জন্য বাড়িটি ধরে রাখার মেয়াদের জন্য, প্রকৃত অধিগ্রহণের মূল্য এবং উন্নতি করার মূল্য বাকি অর্থ থেকে বাদ দেওয়া হয়  এবং সেই পরিমাণটিকে স্বল্পমেয়াদী লাভ হিসাবে গণ্য করা হয় এবং আপনার লাভের উপর প্রযোজ্য হারে কর দেওয়া হয়। যদি মিলিত অধিগ্রহণের মেয়াদ 36 মাস অতিক্রম করে, তবে আপনি মূল্য মুদ্রাস্ফীতি সূচকের গুণক দ্বারা বর্ধিত হিসাবে অধিগ্রহণ খরচ এবং উন্নতির খরচ কমানোর অধিকার পাবেন। মূল্যের মুদ্রাস্ফীতি গুণক, ক্রয়ের বছরের এবং বিক্রয়ের বছরের মূল্য মুদ্রাস্ফীতি সূচকের উপর নির্ভর করে, হিসাব করা হয়।

অধিগ্রহণের খরচ বাড়ির ক্রয়ের পূর্ববর্তী কোনও মালিকদের দ্বারা প্রদত্ত মূল্যের পরিমাণ হবে। উদাহরণস্বরূপ, একটি দৃশ্যকল্প বিবেচনা করুন, যেখানে আপনি আপনার বাবার কাছ থেকে একটি বাড়ি উত্তরাধিকারসূত্রে পেয়েছেন এবং তিনি তার পিতার কাছ থেকে উত্তরাধিকার সূত্রে পেয়েছেন। যদি আপনার পিতামহ 50,000 টাকায় বাড়ি কিনে থাকেন, তাহলে আপনার মূলধন লাভের জন্য অধিগ্রহণের খরচ 50,000 টাকা হবে। অধিকন্তু, যদি 1981 সালের 1 এপ্রিলের আগে উত্তরাধিকারসূত্রে বাড়িটি পাওয়া হয়ে থাকে, তাহলে আপনি ‘অধিগ্রহণের খরচ” এর জন্য  1লাএপ্রিল 1981 তারিখের সম্পত্তির ন্যায্য বাজার মূল্যের পরিবর্তে ঐ দামের উপর মূল্যের মুদ্রাস্ফীতি সূচক গুণক প্রয়োগ করতে পারেন।

যদি 1981 সালের 1 লা এপ্রিলের পরে সম্পত্তিটি উত্তরাধিকারসূত্রে পাওয়া হয়ে থাকে, তাহলে আপনাকে অধিগ্রহণের খরচ হিসাবে 50,000 টাকা মেনে নিতে হবে। আয়করের কঠোর নীতি হিসাবে, আপনি সূচককরন সুবিধা সেই বছরের প্রসঙ্গে দাবি করতে পারেন শুধুমাত্র যে বছর আপনি সম্পত্তি উত্তরাধিকারসূত্রে পেয়েছেন এবং  তার পূর্বে নয়I যদিও মুম্বই, দিল্লি এবং গুজরাত এর হাইকোর্ট মনে করে যে উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তির জন্য, যদি সম্পত্তি 1 এপ্রিল, 1981 এর পরে অর্জিত হয়, করদাতা সেই  বছর থেকে সূচককরন সুবিধাগুলি দাবি করতে পারে, যখন তার পূর্বের মালিক তার জন্য অর্থ পরিশোধ করেছেন এবং সম্পত্তি অর্জন করেছেন।

যে কোনও ক্ষেত্রে, এমনকি 1 এপ্রিল, 1981 এর আগে সম্পত্তির কেনাকাটার পরেও, আপনি ‘অধিগ্রহণের খরচ’এর জন্য 1981 সালের 1লা এপ্রিল তারিখের বাজার মূল্যে  পরিবর্ত করতে পারেন এবং 1 এপ্রিল, 1981 থেকে সূচককরণের সুবিধা পেতে পারেন, এমনকি যদিও আপনি সেটি পরবর্তী কালে উত্তরাধিকার হিসেবে লাভ করেন I

 

দীর্ঘমেয়াদী মূলধন লাভ থেকে অব্যাহতি

একটি দীর্ঘমেয়াদী সম্পদ এর জন্য, আপনার কর বাঁচানোর দুটি বিকল্প আছে। হয়তো আপনি দুই বছরের মধ্যে একটি বাড়ি ক্রয়ের উপর মূলধন লাভ বিনিয়োগ করতে পারেন অথবা তিন বছরের মধ্যে একটি বাড়ি নির্মাণ করতে পারেন। বিকল্পভাবে এবং / অথবা অতিরিক্তভাবে, আপনি পরবর্তী ছমাসের মধ্যে এনএইচএআই(NHAI) অথবা আরইসি (REC) -র বন্ডগুলিতে 50 লক্ষ পর্যন্ত মূলধন লাভ বিনিয়োগ করতে পারেন।

 

2017 সালের প্রস্তাবিত বাজেটের প্রভাব

2017 সালের বাজেটে, একটি প্রস্তুত গৃহ বিক্রির ক্ষেত্রে,  দীর্ঘমেয়াদী হিসাবে যোগ্যতা অর্জনের জন্য প্রয়োজনীয় অধিগ্রহণের সময়, বর্তমান মেয়াদকাল 36 মাস থেকে 24 মাসে কমানোর  প্রস্তাব করা হয়। অনুরূপভাবে, বাজেটে ন্যায্য বাজার মূল্য গ্রহণের জন্য বিকল্পটি 1 এপ্রিল, 1981- এর পরিবর্তে 1 এপ্রিল, 2001 অনুযায়ী করার জন্যও প্রস্তাব দিয়েছে। এই পরিবর্তনগুলি পরিবর্তন সাপেক্ষ, যা প্রস্তাবের মধ্যে তৈরি করা যেতে পারে এবং  যেগুলি নির্ধারিত সময়ের আগেই সংসদ কর্তৃক পাস হয়

(লেখক হলেন 35 বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন কর এবং গৃহ অর্থনীতির বিশেষজ্ঞ)

 

Was this article useful?
  • 😃 (0)
  • 😐 (0)
  • 😔 (0)

Comments

comments